মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

প্রতিষ্ঠান অবসায়ন (উইন্ডিং আপ)

১। উইন্ডিং আপের ধরন

  একটি কোম্পানির উইন্ডিং আপ হতে পারে-

  1. আদালতের মাধ্যমে
  2. স্বেচ্ছায়

  স্বেচ্ছায় উইন্ডিং আপের বিভাজন-

  1. সদস্যদের ইচ্ছায় উইন্ডিং আপঃ যেখানে দেনা প্রদানে সচ্ছলতার একটি ঘোষণাপত্র দিতে হয়।
  2. পাওনাদারদের (Creditor) ইচ্ছায় উইন্ডিং আপঃ যেখানে সচ্ছলতার ঘোষণাপত্র দিতে হয় না।
  3. আদালতের তত্তাবধনে উইন্ডিং আপঃ যেখানে কোম্পানি স্বেচ্ছায় উইন্ডিং আপের জন্য সিদ্ধান্ত নেয় এবং সদস্য বা পাওনাদারদের দায়েরকৃত পিটিশন বিবেচনায় আদালত এই মর্মে আদেশ জারি করেন যে, উইন্ডিং আপ প্রক্রিয়া আদালতের তত্তাবধনে চলবে।

    

২। আদালতের মাধমে উইন্ডিং আপ

  1. কোম্পানি বা কোম্পানির এক বা একাধিক ক্রেডিটর বা নিবন্ধক আদালত কর্তৃক উইন্ডিং আপের জন্য আদালতে পিটিশন জমা দেন।          
  2. পিটিশন উপস্থাপনের সময় থেকে আদালত কর্তৃক কোম্পানির উইন্ডিং আপ প্রক্রিয়া আরম্ভ হয়েছে বলে গণ্য করা হবে।             
  3. আবেদনকারী /কোম্পানি আদালতের আদেশর ত্রিশ (৩০) দিনের মধ্যে আদেশের একটি অনুলিপি নিবন্ধকের কাছে জমা দেন।             
  4. নিবন্ধক সরকারি গেজেটে আদালতের এই আদেশের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন।
  5. কোন পাওনাদার বা অবদানকারীর আবেদন বিবেচনায় উইন্ডিং আপের জন্য আদেশের পর যে কোন সময়ে, পুরোপুরি বা সীমিত সময়ের জন্য আদালত উইন্ডিং আপ প্রক্রিয়া স্থগিত রাখার আদেশ দিতে পারেন।
  6. আদালত অফিসিয়াল রিসিভার ব্যতীত অন্য এক বা একাধিক ব্যক্তিকে উইন্ডিং আপ প্রক্রিয়ার জন্য লিকুইডেটর (অবসায়ক) হিসেবে নিয়োগ দিতে পারেন।
  7. অফিসিয়াল লিকুইডেটর নিবন্ধকের নিকট কোম্পানির নিরীক্ষিত হিসাব ফাইল করেন।
  8. কোম্পানির যাবতীয় বিষয় মিটে যাওয়ার (উন্ড আপ) পর অফিসিয়াল লিকুইডেটর কোম্পানি বিলুপ্তির বিষয়ে আদালতের আদেশ তা জারির পনের (১৫) দিনের মধ্যে  নিবন্ধকের নিকট ফাইল করেন।

 

৩। স্বেচ্ছায় উইন্ডিং আপ

  1. স্বেচ্ছায় উইন্ডিং আপের জন্য একটি কোম্পানিকে রেজুলিউশন, বিশেষ রেজুলিউশন বা এক্সট্রাঅরডিনারী রেজুলিউশন গ্রহণ  করতে হয়।
  2. রেজুলিউশন গ্রহণের সময় থেকে স্বেচ্ছায় উইন্ডিং আপ আরম্ভ হয়েছে বলে গণ্য করা হয়।
  3. রেজুলিউশনের দশ (১০) দিনের মধ্যে কোম্পানিকে অফিসিয়াল গেজেটে এবং সংবাদপত্রে এ ধরনের একটি রেজুলিউশন গ্রহণ করা হয়েছে জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি দিতে হবে।
  4. সদস্যদের মাধ্যমে উইন্ডিং আপঃ এই ক্ষেত্রে, স্বেচ্ছায় উইন্ডিং আপের রেজুলিউশন গ্রহণের পূর্বে পরিচালকগণ এক সভায় কোম্পানির সচ্ছলতার বিষয়ে এই মর্মে একটি ঘোষণাপত্র দেন যে, কোম্পানি অনধিক তিন (৩) বছরের মধ্যে তার দেনা পরিশোধ করতে সক্ষম। ঘোষণাপত্রটি নিবন্ধকের নিকট ফাইল করতে হবে।
  5.  পাওনাদারদের মাধ্যমে উইন্ডিং আপ- এই ক্ষেত্রে দেনা পরিশোধের কোন ঘোষণাপত্র দিতে হয় না।
  6. কোম্পানি এক বা একাধিক লিকুইডেটর নিয়োগ করবেন।
  7. কোম্পানির যাবতীয় বিষয় মিটে যাওয়ার (উন্ড আপ) পর চূড়ান্ত সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার এক (১) সপ্তাহের মধ্যে লিকুইডেটর চূড়ান্ত হিসাব (account) এবং চূড়ান্ত সভার রিটার্ন নিবন্ধকের নিকট ফাইল করবেন।
  8. কোম্পানির চূড়ান্ত সভার রিটার্ন নিবন্ধনের তিন (৩) মাস পর কোম্পানি বিলুপ্ত বলে বিবেচিত হবে।
  9. তবে কোন পিটিশন বিবেচনায় আদালত বিলুপ্তির সময় বাড়াতে পারবেন।
  10. আদালতের তত্ত্বাবধানে উইন্ডিং আপ- স্বেচ্ছায় উইন্ডিং আপের যেকোন পর্যায়ে সদস্য বা পাওনাদারদের দায়েরকৃত কোন পিটিশন বিবেচনায় আদালত এই মর্মে আদেশ জারি করতে পারেন যে, স্বেচ্ছাকৃত উইন্ডিং আপ প্রক্রিয়া আদালতের তত্তাবধনে চলবে।

 


Share with :
Facebook Facebook